কবি গৌতম বসুর সঙ্গে আলাপবিস্তার

কথা শুরু হয় যুগান্তর চক্রবর্তী এবং পুর্ণেন্দু পত্রীকে নিয়ে… তারপর একটু চুপ থেকে…  গৌতম বসুঃ খুব কঠিন প্রশ্ন করবে?  অনিমিখ পাত্রঃ (সমবেত হাসি) এ বাবা… কঠিন প্রশ্ন করতে পারবো কি?  গৌতমঃ এ মা… সে কী… তোমরা কত কিছু লেখো, পড়ো…  সঙ্ঘমিত্রা হালদারঃ চেষ্টা করি… গৌতমঃ না… ব্যাপার হচ্ছে কী… প্রত্যেক মানুষের তো একটা টাইম স্প্যানের ব্যাপার আছে! তোমার সঙ্গে আমার তফাত হচ্ছে আমার বয়সটা বেশি, আমি অনেক কিছু দেখার সুযোগ পেয়েছি। আর তো কিছু নয়! এই অ্যাডভান্টেজ দিয়ে কিন্তু বেশিদিন চলবে না!  সঙ্ঘমিত্রাঃ  আপনার ক্ষেত্রে যে শুধু বয়সের অ্যাডভান্টেজ তা…

Read More

সুকুমারীকে না-বলা কথা

১ অন্ধকার একটা ঘোড়া ছুটে বেড়াচ্ছে প্রভুর সন্ধানে, মিছে হতে মিছে, এ প্রহেলিকা হতে অন্য প্রহেলিকায়, অন্ধকার একটা ঘোড়ার কেশর থেকে ঘাম ঝরছে এ প্রহেলিকায়, ও প্রহেলিকায় অশ্বক্ষুরের আঘাত ৷ সদ্যমৃত এই মাঠে তুমি যে বারবার ফিরে আসছ আমি তার কতটুকু বুঝি, তবু, চোখ ফেরাতে পারি না; যত বড় জয় তত বৃহৎ ধ্বংসস্তূপ, মাঝরাস্তায় ততবার হারিয়ে যাই, সামান্য এই পথনাটিকায় ৷ ততবার, গণনাসঙ্কুল আমার এ রাত্রিপটমাঝে, দূর হতে শুনি তারে, টিলার ধার বেয়ে ধোঁয়ার মতো উঠে আসছে সে, চোয়ালের কোণ থেকে অবিরাম ফেনা ঝরছে, আমরা মরলোকের শেষ ক্রোশ পেরিয়ে যাচ্ছি…

Read More