সেখ সাদ্দাম হোসেন

সেখ সাদ্দাম হোসেনের কবিতাগুচ্ছ

গুজারিশ

১।
এ মৃত্যু আমার, এক দীর্ঘ সফর
নিজেকে আসমানি ঘুমে ফিরিয়ে দেব তোমার গর্ভে।

তোমাদের যুগল তসবিরের কাচে, একদিন ছায়া ফেলবে
ঈদের চাঁদ, সন্তানসম্ভবা

সেইদিন তুমি আসল নারী, সেইদিন

আমাকে বুকে জড়িয়ে আকুল ভালবাসি বলতে চেয়ে
তুমি আপন ঢেউয়ে, মহব্বতি নাও ভাসাবে

ঘর গোছাবে, টিপ পড়বে, অপেক্ষার দশ মাস দশ দিন

২।
তুমি কেবলই আমার–
এমন মতলবি শব্দবন্ধের মধ্য দিয়ে তোমায় ভালোবেসে যাচ্ছি

এ ভালোবাসার ভিতরে এক বিশাল কান্না আছে।
তুমি তাকে সমঝে নিতে চাইছ

তুমি তাকে ঘর দিয়েছ
অলংকার
তালা
চাবি, আর

আমার কান্নার কাছে আমিও পৌঁছাতে পারিনি বলে, আমিও
কেবলই তোমার

জুতো

১।
আমাদের বরণ করে কেউ ঘরে তুললো না কোনোদিন।

শেষ দরজার পাশে আমাদের সম্পর্ক অপেক্ষা করে থাকে
মালিক আসে, বুকে পা দিয়ে পিরিত চটকায়

তারপর দিনদিন বুঝতে থাকে, তার কাছেও আমরা
একে অপরকে ছাড়া অচল

২।
আমাদের ঝগড়াঝাটি হলে, আমরা মাঝে মাঝে
বাড়ি ছেড়ে চলে যাই

কেউ কখনও জুতোজোড়া পায়ে নিতে ভুলি না

এই অভ্যাস, একদিন ঠিক
তোমার কাছে আমাকে, আমার কাছে তোমাকে

ফিরিয়ে আনবে বলে

৩।
একটা কথা জুতোর ফিতের মতো পরিষ্কার

যতদিন অক্ষয়, তুমি আঁকড়ে ধরে থাকতে চাইবে
ততদিন বয়ে বেড়াতে হবে শরীর
রোদজলকাদা যন্ত্রণা

এই দ্যোতনা, এই উন্মুক্ত সরাইখানা
ইন্তেজার করে আছে তোমার ছিঁড়ে যাওয়া নিয়ে

৪।
যাকে তুমি অপয়া ভাবো
সেই জুতোই চিনিয়ে দেয় মানুষ তুমি কতটা পাগল

Facebook Comments

Hits: 356

Related posts

Leave a Comment